বিভাগ পরিবর্তনের আগে যে সাতটি বিষয় জানতে হবে

Maliha Eena is currently an undergraduate student of the Economics department in the University of Dhaka.


পুরোটা পড়ার সময় নেই? ব্লগটি একবার শুনে নাও।

এইচএসসি পরীক্ষা শেষ, ভর্তিযুদ্ধ কড়া নাড়ছে দরজায়। ইতোমধ্যে অনেকেই ঠিক করে ফেলেছ কে কোন ময়দানে যুদ্ধ করতে যাবে, অনেকে প্রস্তুতিও নেওয়া শুরু করে দিয়েছ। উচ্চশিক্ষা এখন যুদ্ধের ন্যায়ই। লড়াই চলবে মেডিকেল, ইঞ্জিনিয়ারিং এবং দেশের শীর্ষস্থানীয় সব বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে একটি সিটের জন্য।বিভাগ পরিবর্তন, বিশ্ববিদ্যালয়

তোমাদের মধ্যে অনেকেই আছ, যারা স্বেচ্ছায় বা অনিচ্ছায় নবম শ্রেণিতে থাকতে বিজ্ঞান বিভাগ নিয়েছিলে, আর তারপরের ৪ বছরে পদার্থ-রসায়নকে আপন করে নিতে পারো নি। তাই অনেকেই ভাবছ বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে বিভাগ পরিবর্তনের। আসলে, বিশ্ববিদ্যালয়ের লেখাপড়াটাই অনেকটা এগিয়ে নিয়ে যাবে তোমাকে তোমার স্বপ্নপূরণের পথে।

প্রশ্ন হচ্ছে, সবাই কি পারে স্বপ্ন সত্যি করতে, সবাই কি পায় সেই কাঙ্ক্ষিত ফলাফল? তাই বিভাগ পরিবর্তন করার আগে নিজেকে করে নাও নিম্নের এই সাতটি প্রশ্ন।

৭। বিভাগ পরিবর্তনের জন্য আমি তৈরি তো?

– হ্যাঁ, নিজেকে প্রশ্ন করো, সায়েন্স ছেড়ে দিয়ে অন্য বিষয় নিয়ে কি আসলেই তুমি পড়তে পারবে। শুধু গণিতে ভয়, অথবা জীববিজ্ঞান পড়তে ভালো লাগে না, তবে রসায়ন অথবা পদার্থবিজ্ঞান নিয়ে তোমার উৎসাহ অনেক। যদি এরকম হয়, তাহলে একটু সময় নিয়ে ভাবতে হবে, আসলেই কি সায়েন্স ছেড়ে দেওয়ার জন্য তুমি প্রস্তুত কি না।ভর্তি পরীক্ষা

৬। কেন বিভাগ পরিবর্তন?

ফিজিক্সের জটিল জটিল সব সূত্র অথবা কেমিস্ট্রির বড় বড় সমীকরণ ভালো লাগে না, কিংবা বায়োলজির সব তথ্য মনে রাখতে পারছো না; ঠিক কোন কারণটির জন্য বিজ্ঞান আর তোমাকে আগের মত আকর্ষণ করছে না তা জেনে নেওয়া খুব প্রয়োজন। এমন যদি হয়, নিজের অনিচ্ছায় বাবা-মায়ের কথায় সায়েন্স পড়তে এসেছ, আর কলেজ অবধি বিষয়গুলোর প্রতি ভালোলাগা জন্মে নাই, তাহলে বিভাগ পরিবর্তন করা যুক্তিসঙ্গত বটে।

৫। কি বিষয় নিয়ে পড়তে চাই?

-নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত আমাদের পড়ালেখা ছিল সব বিষয়ের মৌলিক দিকগুলো নিয়ে। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে আমরা সেই মৌলিক দিকগুলো থেকে আসতে আসতে গভীরে গিয়ে সেই বিষয় সম্পর্কে জানতে শুরু করি। তাই কোন বিষয় নিয়ে উৎসাহ বেশি, তা জানতে হবে। উদাহরণস্বরূপ, আজকাল অনেকেই বিজ্ঞান বিভাগ থেকে পাশ করে বিবিএ করতে চায়। 

বিবিএ শিক্ষার্থীদের জন্য মার্কেটিং অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

৪। স্রোতের সাথে গা মেশাচ্ছি না তো?

– যদি তাই হয়, তাহলে জীবনের মস্ত বড় ভুলটা করতে যাচ্ছ তুমি। লেখাপড়া একান্তই তোমার নিজের। আর যেহেতু জীবনটা তোমার, তাই সিদ্ধান্তটাও হওয়া উচিত তোমার নিজের। 

admission test, বিভাগ পরিবর্তন

৩। বিষয়গুলো সম্পর্কে ভালো করে জানি তো?

– বিভাগ পরিবর্তন করে চলে এলে এক নতুন বিষয়ে, কিন্তু সেই বিষয় সম্পর্কে তোমার জ্ঞান স্বল্প। বিষয় পত্রের মূল উদ্দেশ্য সম্পর্কে তুমি সন্দিহান। তাহলে কিন্তু সেই একই অকূল পাথারে তীর খোঁজার মতই হবে ব্যাপারটা। তাই কোন বিষয় নিয়ে পড়বে, তা সম্পর্কে যথেষ্ট ধারণা রাখতে হবে।

২। নিজেকে ভবিষ্যতে কোথায় দেখতে চাই?

– প্রশ্ন করো, আগামী ১০ বছর পর কোথায় দেখতে চাও নিজেকে? কোন কর্পোরেট লিডার, নাকি সরকারী চাকুরীজীবী নাকি গবেষণা, কোন ক্ষেত্রে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত দেখতে চাও। ঠিক কোন বিষয় তোমাকে তোমার কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছে দিতে পারবে, তা সম্পর্কে ধারোনা রাখতে হবে।

জীবন তোমার, ক্যারিয়ারও তোমার

১। কে কি বলবে?

-আমাদের দেশের বাবা-মায়েরা বেশিরভাগই চায় তাঁদের সন্তানরা যেন ডাক্তার কিংবা ইঞ্জিনিয়ার হয়। তুমি যদি এই গতানুগতিক ধারণা থেকে বেড়িয়ে আসতে চাও, তাহলে তোমাকে অনেক প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হবে। যেমন, পাশের বাসার আন্টি এসে অনেক কিছুই বলবে। কিন্তু, জীবন তোমার, ক্যারিয়ারও তোমার। তাই দৃঢ় মনে এই সমস্ত বাধা থেকে নিজেকে বের করে আনতে হবে। তার জন্য চাই আত্মবিশ্বাস। প্রশ্ন হল, আছে সেই আত্মবিশ্বাস? জয় করতে পারবে এসব বাধা? 

পরিশেষে, চার বছরের এক ধরনের লেখাপড়ার পর বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে বিভাগ পরিবর্তনের সিদ্ধান্তটা তোমার জীবনের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই ৭ টি প্রশ্ন তোমার জীবনকে পরিবর্তন করতে না পারলেও এই গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তটি নিতে একটু হলেও সাহায্য করবে আশা করি।

ফলাফলের জন্য শুভকামনা।


১০ মিনিট স্কুলের লাইভ এডমিশন কোচিং ক্লাসগুলো অনুসরণ করতে সরাসরি চলে যেতে পার  এই লিঙ্কে: www.10minuteschool.com/admissions/live/

১০ মিনিট স্কুলের ব্লগের জন্য কোনো লেখা পাঠাতে চাইলে, সরাসরি তোমার লেখাটি ই-মেইল কর এই ঠিকানায়: [email protected]

লেখাটি ভালো লেগে থাকলে বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না!
What are you thinking?

GET IN TOUCH

10 Minute School is the largest online educational platform in Bangladesh. Through our website, app and social media, more than 1.5 million students are accessing quality education each day to accelerate their learning.