Call & SMS: পাত্তা না দিলে পাত্তা আদায় করে নাও

January 21, 2018 ...

Cold calling বলে ইংরেজিতে একটা কথা আছে। না, এর সাথে ঠাণ্ডা কথার কোন সম্পর্ক নেই, ঠাণ্ডা কথা আবার কী? Cold calling শব্দটার মানে হলো অপরিচিত কারো সাথে প্রথমবারের মতো কথা বলা। এখানে প্রশ্ন আসতে পারে, এগুলো নিয়ে লেখার কী দরকার? 

সত্যিটা হলো, এসব নিয়েই জানা দরকার সবার। আমরা ইন্টারনেটে শ’য়ে শ’য়ে ব্লগ পড়ি, ইউটিউবে ট্রেন্ডি ভিডিও দেখি। সেখানে শেখানো হয় কীভাবে সুন্দর করে কথা বলে মেয়েদের ইম্প্রেস করতে হয়, কোন স্টাইল ফলো করতে হয় আরো কতো কী। অথচ কোন অফিশিয়াল আলোচনার ক্ষেত্রে কিন্তু সামনাসামনি দেখা সাক্ষাতের থেকে ফোনেই বেশি কথাবার্তা হয়! তাই অপরিচিতের সাথে শুরুতে কীভাবে কথা বলবে, সেটা শিখে নেয়া জরুরি।

প্রথমবার কাউকে ফোন দেয়ার কিছু নিয়ম রয়েছে। এগুলো মেনে চললে ফোনের ওপাশের মানুষটি ভাববে তুমি একশো ভাগ প্রফেশনাল- আর এতে সুসম্পর্কও গড়ে উঠবে!

নিজের পরিচয় জানাও আগে:

ফোন করলে, ওপাশ থেকে পরিচয় জানতে চাইলো, তুমি বলে দিলে তোমার প্রিয় ডাকনামটি, পাড়াতো ছোটবোনটি তোমাকে যে নামে ডাকে- তাহলে কি ব্যাপারটা প্রফেশনাল হলো? একদমই না। তুমি যেই প্রতিষ্ঠানের হয়ে কাজ করো, অথবা সেই মানুষটি যেই প্রতিষ্ঠানের নাম শুনে তোমার সাথে কথা বলতে রাজি হয়েছে, তুমি সেই নামটাই বলো। “ভাইয়া, আমি টেন মিনিট স্কুল থেকে আয়মান বলছি”। এখন শুনতে ভালো লাগছে না?

strategies for cold calls

আরেকটা বিষয়। তুমি যাকে কল করছো, এটা জেনেই কল করছো যে এই মানুষটি আসলে কে। তাই ফোন দিয়েই “ভাই, আপনি কে বলছেন?” বলে সময় নষ্ট করবে না। এতে যাকে কল করছো তিনি নিজেও মহা বিরক্ত হয়ে উঠতে পারেন। কুশলাদি বিনিময় করলে ভালো হয় এ জায়গাটায়।

নিশ্চিত হয়ে নাও ফোনের ওপাশের মানুষটি ব্যস্ত কি না:

পরিচয় আর কুশলাদির পর এইটুকু জিজ্ঞেস করে নেয়া খুবই দরকার, যে মানুষটি কি এখন ফ্রি কিনা। তুমি ফোন দিয়েছো দরকারি কাজে। উনি ব্যস্ত থাকলেও হয়তো ভদ্রতার খাতিরে এক দুইটা কথা বলে দিতে পারেন, কিন্তু তোমার দায়িত্বই বলা চলে, যে উনি ব্যস্ত থাকলে পরে একসময় ফোন দেয়া।

তোমার কাজের একটা Call to action রেডি রাখতে হবে না?

এভাবে বলতে পারো, “আমি জানি আপনি অনেক ব্যস্ত একজন মানুষ, আপনার কি কথা বলার দুই মিনিট সময় হবে?” এতে দুটো বিষয় হচ্ছে। প্রথমত, উনি ব্যস্ত না থাকলেও তোমার কথায় অনেক খুশি হচ্ছেন, তোমার কথায় তাঁর নিজেকে বেশ গুরুত্বপূর্ণ মনে হচ্ছে তোমার কাছে। দ্বিতীয়ত, এই সুন্দর ব্যবহারটুকু অনেক কাজে দেবে ভবিষ্যতে।

                       

কথা শেষ মানে পরিচয় শেষ না:

কাজের কথা বলা শেষ। এখন কি তুমি ফোন রেখে দেবে? মোটেও না। তোমার কাজের একটা Call to action রেডি রাখতে হবে না? জেনে নাও এরপরে তাঁর সাথে কবে কথা বলা যাবে। কোথায় দেখা করা যাবে। ইমেইল আইডি নিয়ে রাখবে, হাল আমলের ফেসবুক আইডি জানা থাকলে তো আরো ভালো!

বারবার কল দেওয়ার বদলে SMS:

ধরো তুমি একজন মানুষকে ফোন দিলে। সে ফোনটা রিসিভ করলো না। তুমি কি তাকে বারবার ফোন দিয়ে জ্বালাতে থাকবে? একটু পর কল করতে থাকবে? মোটেও না। এটা খুব খারাপ দেখায়, মানুষটিও বারবার কলে বিরক্ত হয়।

এক্ষেত্রে তুমি যেটা করতে পারো, সেটা হচ্ছে উনার ফোনে একটা SMS করে রাখতে পারো। ফেসবুক-মেসেঞ্জারের যুগে মেসেজিং করাই হয় না আর তেমন। কিন্তু দেখো, বারবার কল না দিয়ে ফোনে একটা ছোট্ট SMS করে রাখাটা কিন্তু অনেক কাজের হবে।

rules for cold calls

ধরো তুমি SMS দিলে, যে তুমি একটা স্কুলের ডিবেট ক্লাবের প্রেসিডেন্ট, ক্লাবের ইভেন্ট নিয়ে তুমি কথা বলতে চাও। উনি কখন ফ্রি জানলে তুমি কল দেবে। এখানে দুটো বিষয় হয়। এক হলো, মানুষটি অর্ধেক জেনেই গেল কেন তুমি কথা বলতে চাও, এতে তোমার সময় বাঁচল। আরেকটা বিষয় হলো যে উনি তোমার জন্যে সময় বের করে রাখতে পারবেন টেক্সট দেখে।

বাংলায় একটা কথা আছে, জানো তো? কেউ পাত্তা না দিলে পাত্তা আদায় করে নিতে হয়। সেজন্যে যদি কখনো দেখো যে কেউ তোমার কল রিসিভ করছে না বা ঠিকঠাক কথা হচ্ছে না, তাহলে বুঝবে শুরুর দিকের নিয়মগুলোতে কোন না কোন ভুল হয়েছে! শুধরে নিয়ে আবার কথা শুরু করো, দেখবে সুন্দর একটা প্রফেশনাল সম্পর্ক তৈরি হয়ে গিয়েছে!

এই লেখাটি লিখতে সহায়তা করেছে অভিক রেহমান
এই লেখাটি নেয়া হয়েছে লেখকের ‘নেভার স্টপ লার্নিং‘ বইটি থেকে। পুরো বইটি কিনতে চাইলে ঘুরে এসো এই লিংক থেকে!


১০ মিনিট স্কুলের লাইভ এডমিশন কোচিং ক্লাসগুলো অনুসরণ করতে সরাসরি চলে যেতে পারো এই লিঙ্কে: www.10minuteschool.com/admissions/live/

১০ মিনিট স্কুলের ব্লগের জন্য কোনো লেখা পাঠাতে চাইলে, সরাসরি তোমার লেখাটি ই-মেইল কর এই ঠিকানায়: write@10minuteschool.com

আপনার কমেন্ট লিখুন