ছাত্রজীবনেই বিদেশ ঘুরে আসুন কম খরচে: পর্ব ২

Probably a much better writer(and also an Elven lord) in the Alternative Reality. In this reality, a life explorer pursuing undergrad on "Peace and Conflict Studies" from the University of Dhaka.

পুরোটা পড়ার সময় নেই? ব্লগটি একবার শুনে নাও

আগের পর্বে আমরা আলোচনা করেছিলাম ভ্রমণ পূর্ববর্তী পর্যায়ে কীভাবে খরচ কমানো যায়। ধরুন, আপনি এখন বেরিয়ে পড়েছেন আপনার আকাঙ্ক্ষিত গন্তব্যে। ভ্রমণ পূর্ববর্তী সবগুলো টিপস আপনি ব্যবহার করেছেন। এখন আপনি আরও কী কী কৌশলে খরচ কমিয়ে সুন্দরভাবে ভ্রমণটি শেষ করে ফিরে আসবেন তাই জানাচ্ছি আজ –

১। পরিবহনে খরচ করুন কম

অনেক শহরে ভালো ও কম খরচের মেট্রো বা বাস সার্ভিস রয়েছে। সেগুলো ব্যবহার করুন। কাছাকাছি হলে চেষ্টা করুন হেঁটেই যেতে। হাঁটার মাধ্যমে আপনি যেমন খরচ বাঁচাতে পারবেন তেমনি নতুন জায়গার মানুষ, তাদের জীবন ও আচার-সংস্কৃতিকে খুব কাছ থেকে দেখতে পারবেন।

২। খাবারের খরচটা কমাতেই হবে

সাধারণত, হোস্টেলেই সকালের নাস্তার ব্যবস্থা থাকে। চেষ্টা করুন, অন্যান্য বেলার খাবারগুলো ফুড-কার্ট বা স্থানীয় খাবারের দোকানগুলোয় করা। স্ট্রিট-ফুড একটা দেশের বা শহরের অনেক বড় পরিচায়ক। সে অভিজ্ঞতা নেয়া থেকে তাহলে কেন বাদ থাকবেন? বিদেশে ভাত-ডাল পাওয়া যেমন প্রায় দুর্লভ তেমনি ব্যয়বহুল। তাই ডাল-ভাতের পরিবর্তে আস্বাদন করুন সে অঞ্চলের স্থানীয় খাবারগুলোই।

৩। ইন্টারনেট ব্যবহার একটু বুঝে শুনে

অনেকের জন্যই ফেসবুকে পোস্ট, ইন্সটায় স্টোরি বা স্ন্যাপচ্যাটে স্ন্যাপ ছাড়া ভ্রমণ প্রায় অসম্ভব। সেটা অবশ্য দোষের কিছু না। তাছাড়া অন্যান্য অ্যাপ, যোগাযোগ, ম্যাপস সহ আরও অনেক কিছুর জন্য এখন ইন্টারনেটের প্রয়োজনীয়তা অনেক। অনেক দেশেই ইন্টারনেট খরচ অনেক বেশি। তাই চেষ্টা করবেন হোস্টেল, ক্যাফে বা ফ্রি পাবলিক ওয়াইফাই ব্যবহার করতে ও মোবাইল ডাটা সবসময় অন না রাখতে।

৪।  করুন প্রযুক্তির সর্বোচ্চ ব্যবহার

প্রায় প্রতিটি কাজের জন্যই এখন আছে অনেক অ্যাপস যা অনেক সমস্যার সমাধান করে দিবে সহজেই। যেমন – ম্যাপের জন্য Google Maps, Here We Go, যেকোনো স্থান, হোটেল বা রেস্টুরেন্টের ব্যাপারে আরও জানতে, রিভিউ বা টিপস ও ট্রিক্সের জন্য TripAdvisor, Lonely Planet Guides ইত্যাদি।

৫। শপিংটা একটু দেখেশুনে করতে হবে

দেশের বাইরে গেলে আমরা সবাই চাই পরিবার, বন্ধু-বান্ধবদের জন্য কিছু উপহার নেয়ার জন্য। বাজেট ভ্রমণে আমরা শপিং এর জন্য যতো কম খরচ করবো, ততোই তা আমাদের জন্য ভালো।

তাও যদি শপিং করতেই হয় তবে অবশ্যই ট্যুরিস্ট অধ্যুষিত জায়গাগুলো এড়িয়ে যাবেন। কারণ, স্বাভাবিকভাবেই যেকোন সাধারণ দোকানের চেয়ে ট্যুরিস্ট এরিয়ার দোকানের জিনিসের মূল্য থাকবে অনেক বেশি।

৬। আগে থেকেই ঠিক করে নিন কোথায় কোথায় যাবেন

যে দর্শনীয় জায়গায় যেতে চান আগেই সে জায়গার ব্যাপারে জেনে রাখবেন। সময় থাকলে সে জায়গার উইকিপিডিয়া আর্টিকেলটিও পড়ে ফেলতে পারেন। তাহলে আপনার সে জায়গায় কোনো গাইড লাগবে না। আবার ভালো মতো সে জায়গাটি দর্শনও হয়ে যাবে।

৭। দুই একটা বিদেশী শব্দ শিখে ফেলুন

যে দেশে যাচ্ছেন, সে দেশের ভাষার কিছু শব্দ শিখে যান। বেশি কিছু শেখা লাগবে না – “শুভ সকাল”, “ধন্যবাদ” – এ ধরনের শব্দগুলো হলেই হবে। আর সাথে Google Translator অফলাইন মোডে সেই ভাষাটা সেভ করে রাখবেন। তাহলে লাভটা কী হবে?

আর হ্যাঁ, পাসপোর্টটি রাখবেন সবচেয়ে সাবধানে

সেই লাভটা আসলে অর্থের অঙ্কে বোঝানো সম্ভব নয়। দরদাম থেকে শুরু করে রাস্তাঘাটে যেকোন পরিস্থিতিতে একজন স্থানীয়ের কাছে যদি আপনি হাসিমুখে তাঁর ভাষায় কিছু জানতে চান, হোক না সেটা ভাঙা ভাঙা ভাষায়, একটি উষ্ণ প্রত্যুত্তর আপনি অবশ্যই পাবেন। বিদেশের মাটিতে অনেক সময় এই অজানা অচেনা মানুষেরাই হয়ে ওঠে সবচেয়ে বড় সাহায্যকারী।

৮। নতুন অভিজ্ঞতার জন্য প্রস্তুত থাকা

ভ্রমণে যেকোন সময় কোনো না কোনো পরিস্থিতি আপনার মুখোমুখি হতে পারে। সেসময় ঠান্ডা মাথায় ভেবে-চিন্তে সেগুলোর মোকাবেলা করবেন। পরিস্থিতি যেমনই হোক, চেষ্টা করবেন প্রতিটা মুহূর্ত উপভোগ করতে। তাহলেই হয়ে যাবে অর্ধেক সমস্যার সমাধান।

এক্সট্রা টিপস: সবসময় নিরাপদ থাকবেন। জীবনের নিরাপত্তা সবার আগে। নিজের লাগেজ ও ওয়ালেট রাখবেন সাবধানে। আর হ্যাঁ, পাসপোর্টটি রাখবেন সবচেয়ে সাবধানে। বিদেশের মাটিতে এটাই আপনার সবচেয়ে বড় সম্পদ।

আশা করি, এই টিপসগুলো কাজে লাগিয়ে আপনিও নেমে পড়বেন আপনার অদেখাকে দেখার পথে। জীবনের স্বাদ গ্রহণের অভিযাত্রায় আপনার জন্য শুভ কামনা। আর হ্যাঁ, যদি এই টিপসগুলো আপনার বিদেশ ভ্রমণে উপকার করে থাকে, তাহলে লেখকের জন্য একটি ছোট্ট স্যুভেনিয়ার আনতে ভুলবেন না।

Bon Voyage!


১০ মিনিট স্কুলের লাইভ এডমিশন কোচিং ক্লাসগুলো অনুসরণ করতে সরাসরি চলে যেতে পারো এই লিঙ্কে: www.10minuteschool.com/admissions/live/

১০ মিনিট স্কুলের ব্লগের জন্য কোনো লেখা পাঠাতে চাইলে, সরাসরি তোমার লেখাটি ই-মেইল কর এই ঠিকানায়: [email protected]

লেখাটি ভালো লেগে থাকলে বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না!
What are you thinking?

GET IN TOUCH

10 Minute School is the largest online educational platform in Bangladesh. Through our website, app and social media, more than 1.5 million students are accessing quality education each day to accelerate their learning.