এসএসসি পরীক্ষা: ব্যবসায় শিক্ষা শাখা- শেষ সময়ে প্রস্তুত তো?

November 12, 2016 ...

পুরোটা পড়ার সময় নেই ? ব্লগটি একবার শুনে নাও !

তুমি যেহেতু এখন এই লেখাটি পড়ছ তাহলে ধরে নেয়া যেতে পারে যে তুমি ব্যবসা শিক্ষা শাখার একজন এসএসসি ক্যান্ডিডেট। তাই প্রথমেই তোমার জীবনের একটি অন্যতম পরীক্ষার জন্য অনেক শুভ কামনা। পরীক্ষার শুরু হওয়ার আগের একদম শেষ সময়টায় আমাদের একটা কমন প্রবলেম হয় সেটা হচ্ছে আমরা সবরকমের পড়া ভুলতে থাকি। এই ব্যপারটাকে মাথায় রেখে আমি এখন কিছু পয়েন্ট বলব যেভাবে পড়লে এই অন্তিম মুহুর্তে তুমি তোমার দুই বছরের প্রস্ততিকে একটা ভাল ফিনিশিং দিতে পারবে।

১। রুটিন হিসাব করে পড়া

শেষ মুহূর্তের প্রিপারেশনের জন্য সবচেয়ে ভাল হয় যদি রুটিনটা আগে হাতে পাওয়া যায়। কিন্তু রুটিন যেহেতু এক মাসের আগে পাওয়া যাবেনা সেহেতু প্রথম পরীক্ষা বাংলা ধরে রেখে, বাংলার দুই পত্রের জন্য শেষের দিকে তোমার প্রয়োজন মত সময় হাতে রেখে বাকি সময়টা অন্যান্য বিষয়ের জন্য বরাদ্দ করতে হবে। রুটিন পাওয়ার পরে যেই বিষয়ের পরীক্ষার আগে দেখবে সবচেয়ে বেশি বন্ধ সেটার জন্য এখন তেমন একটা সময় রাখার দরকার নেই।

1

 

২। প্রয়োজনমত সময় বন্টন

প্রতিটা বিষয়ের জন্য সময় ভাগ করে নিবে, যেই বিষয় তুমি ইতোমধ্যে ভাল পার তার জন্য বেশি সময় না রেখে ঐ সময়টায় অপেক্ষাকৃত কঠিন বিষয়টা পড়বে।

৩। ঘড়ি ধরে হিসাববিজ্ঞান চর্চা

হিসাববিজ্ঞানের জন্য গত বিভিন্ন স্কুলের টেস্ট পেপার সল্ভ করার চেষ্টা করবে(অবশ্যই ঘড়ি ধরে) কিন্তু যদি মনে হয় যে না, এত কম সময় হিসাববিজ্ঞানের গণিত করতে গেলে অন্যান্য সাব্জেক্ট রিভিশনের সময় পাওয়া যাবেনা তাহলে করার দরকার নেই কিন্তু প্রশ্নগুলো অবশ্যই দেখবে এবং যেটাতেই সমস্যা মনে হবে সেটার উত্তরটা দেখবে। না বুঝলে বিশ্বস্ত কারো সাহায্য নেবে কিন্তু নিতান্তই যদি মনে হয় যে কিছুতেই মাথায় ঢুকছে না, তাহলে স্কিপ করে যাবে কারণ একটা বিষয় নিয়ে বসে থাকার সময় এখন না। মনে রাখবে, হিসাববিজ্ঞানের প্রশ্ন অনেক ভাবে ঘুরিয়ে করা যায়(যদিও মাধ্যমিকে সাধারণত করা হয়না) তাই নিজেকে ঐভাবে প্রস্তত রাখবে। তত্ত্বীও অংশটা নৈর্বত্তিকের জন্য পরীক্ষার আগের দিন কিংবা হলের বাইরের বসে থাকার সময়টা পরে ফেলবে। ঐ সময় নতুন কিচ্ছু দেখবেনা তাহলে মাথা খারাপ হয়ে যাবে।

 

2 2

ফিন্যান্সকেও সময় দিও

  ফিন্যান্সের সূত্রগূলো রিভিশনের উপর রাখবে, ম্যাথ প্র্যাক্টিস করবে আর যেহেতু ফিন্যান্সের তত্ত্বীও অংশটা অনেক ইন্টারেস্টিং, তাই এর জন্য এত সময় রাখার দরকার নেই(যদিনা তোমার একান্তই দরকার হয়)।

 

 

৫। তাত্ত্বীক বিষয়গুলোর প্রতিও খেয়াল রেখ

ব্যবসায় উদ্যোগে এবং সাধারণ বিজ্ঞান টানা ২-৪ দিন(তোমার প্রয়োজন মত) রিভিশন দিলে ভাল কারণ যেহেতু গাণিতিক বিষয়না তাই এখানে নিয়মিত প্র্যাক্টিস করার মত কিছু নেই। এরপরও সাধারন বিজ্ঞানে কিছু কিছু যে গণিত রয়েছে সেগুলো এর মাঝেই আয়ত্তে এনে ফেলবে।

পড়ার চাপে কখনোই প্রার্থনা করার কথা ভুলে যাবেনা

SSC Test Paper

৬। অপেক্ষাকৃত সহজ বিষয়গুলোকে নিয়ে অবহেলা চলবে না

ক্যারিয়ার শিক্ষা বিষয়টা পরীক্ষার আগের রাতেই পড়া ভাল কিন্তু যদি এর মাঝে সময় পাওয়া যায় তবে একবার রিভাইস করে নেয়া ভাল। অনেকেই মনে করে যে শারীরিক শিক্ষা আর ধর্ম শিক্ষা বিষয় দুইটা পরীক্ষার আগে রাতে পড়লেই হয়। কিন্তু এই দুইটা আসলে এভাবে একরাতে পড়ার বিষয় না। এই দুইটা বিষয়ও ব্যবসায় উদ্যোগের মত ২-৪ দিনে পড়ে ফেলার চেষ্টা করবে। ইসলাম শিক্ষায় এর মাঝে পারলে বিভিন্ন হাদীস আরবীতে লেখার চেষ্টা করবে, এই জিনিষটা অনেক মার্ক্স ক্যারি করে বিশেষ করে শুদ্ধভাবে আরবী লিখতে পারলে অনেক সময় ‘উচ্চতর দক্ষতা’ এর উত্তরে ফুলমার্ক্স পাওয়া যায়। অনুরূপভাবে শারিরীক শিক্ষায় বিভিন্ন খেলার মাঠের চিত্রটাও আঁকার প্র্যাক্টিস করবে। তবে যদি মনে হয় যে, আরবী লেখায় কিংবা মাঠ আঁকায় তুমি ভাল নও তবে রিস্ক নেয়ার দরকার নেই।

৭। ইংরেজীতে একটু অবহেলা হতে পারে পরবর্তী দুই বছরের কান্না

ইংরেজী ২য় পত্রের গ্রামার পার্টটুকুর জন্যও টেস্টপেপার অনুশীলন করবে আর পরীক্ষার আগের দিন এর কম্পজিশন পার্টটা পড়বে। তবে তুমি যদি মনে কর একদিনে সম্ভব নয় তাহলে প্রতিদিন অন্তত একটা করে কম্পজিশন কিংবা প্যারাগ্রাফ কিংবা এ ধরণের কিছু পড়ে ফেলবে।(৮ নম্বর পয়েন্টে ইংরেজী সম্মন্ধে একটি চিরায়ত সত্য কথা রয়েছে।)

৮। চর্চার উপর রাখতে হবে সাধারণ গণিতকে

একটা সময় ছিল যখন, সাধারন গণিতের বইয়ের অনুশীলনের প্রশ্নগুলো প্র্যাক্টিস করতে করতে মুখস্থের মত হয়ে যেত আর দেখা যেত কি, হুবোহু একই প্রশ্ন পরীক্ষায়ও চলে আসত কিন্তু এখন সৃজনশীল পদ্ধতিতে সেই ব্যবস্থা যেহেতু আর নেই তাই ভুলেও গণিত মুখস্ত করবেনা। এর জন্যও টেস্ট পেপার অনুশীলন করবে। এই শেষ কয়কটা দিন পারলে প্রতিদিনই গণিত চর্চা করবে কারণ ব্যবসায় শিক্ষা শাখার শিক্ষার্থীরা গণিত আর ইংরেজীতেই সাধারণত ধরা খায়।

৯। ঘুম বড় না পড়াশোনা বড়?

পর্যাপ্ত ঘুমাবে। রাতের বেলা ঘুমে চোখ বন্ধ হয়ে আসছে কিন্তু তারপরও পড়েই যাচ্ছ এমনটা করবেনা কারণ এতে করে পড়া মাথায় ঢুকেনা বরং সময় নষ্ট হয় এবং শরীরও খারাপ হয়ে পরে।

3

১০। ফেসবুক ক্যান ওয়েট বাট টেক্সটবুক কান্ট্

এই সময়টা যতটা সম্ভব সোশিয়াল সাইট থেকে দূরে থাকবে কারণ এই জিনিষগুলো সময় অনেক নষ্ট করে।

এই কয়েটা পয়েন্ট যদি তুমি অনুসরণ কর তাহলে তোমার প্রস্ততিটা খারাপ হবেনা বলে আমার বিশ্বাস কিন্তু এর বাইরে যদি তুমি মনে কর যে কিছু করলে তোমার জন্য ভাল হবে তাহলে তাই অনুসরণ করবে কারণ তোমারটা তোমার থেকে ভাল আর কেউ বুঝবেনা। আর আগের রাতে প্রশ্ন ফাঁস হয়েছে এধরণের কথা শুনে বিচলিত হওয়ার কিচ্ছু নেই কারণ তোমার প্রস্ততি ভাল থাকলে যতকিছুই হোকনা কেন, তোমার কোনো ক্ষতি হবেনা আর শুধু শুধু এসবের পেছনে সময় ব্যয় করারও দরকার নেই। আর হ্যাঁ, পড়ার চাপে কখনোই প্রার্থনা করার কথা ভুলে যাবেনা। হ্যাপি লার্নিং! 😀


১০ মিনিট স্কুলের লাইভ এডমিশন কোচিং ক্লাসগুলো অনুসরণ করতে সরাসরি চলে যেতে পারো এই লিঙ্কে: www.10minuteschool.com/admissions/live/

১০ মিনিট স্কুলের ব্লগের জন্য কোনো লেখা পাঠাতে চাইলে, সরাসরি তোমার লেখাটি ই-মেইল কর এই ঠিকানায়: write@10minuteschool.com

আপনার কমেন্ট লিখুন