আয় করুন ঘরে বসেই!

One can become a hero by saving one life, I dream of saving thousand lives everyday. Hello good people, This is your creative nerd nextdoor, having passion & love for humanity, Surgery,Public health, radio & TV programme presentation, News reporting,Creativity, Art, Writing, music, travelling, Food, Culture & lots more.


পুরোটা পড়ার সময় নেই? ব্লগটি একবার শুনে নাও।

প্রাত্যাহিক এই স্মার্ট যুগে প্রায় সবাই কম বেশী পার্টটাইম জব করেন ছাত্রজীবন থেকে। কেউ কেউ স্টুডেন্ট পড়ায়। যে যে ভাবেই আয় করুক মনে রাখতে হবে প্রতিটা কাজ সমান সম্মানের ও পরিশ্রমের, পারিশ্রমিক যতই হোক না কেন। অনেকেই আছেন যারা গৃহিনী অথবা অধিকাংশ সময়ে বাড়িতে থাকেন। ছাত্র ছাত্রীরাও পরীক্ষ শেষ হলে ছুটিটা বাসায় কাটায়।  আবার হয়তোবা ক্লাস ছাড়া বাকি সময়টাতে আপনি বাসায় থাকেন। আপনি যেই হোন না কেন, আজ আপনাদের জন্য আমি শেয়ার করছি কিছু উপায় ও টিপস যার সাহায্যে ঘরে বসেই আপনি উপার্জন করতে পারবেন, চলুন জেনে নেয়া যাক –

ফ্রিল্যান্সার জব:

ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কাজ করতে পারেন।  ফ্রিল্যান্সার কয়েক ধরনের হতে পারে যেমন –

Content Writer, Web designer, Graphics designer ইত্যাদি। প্রথমে কোন প্রতিষ্ঠানের অধীনে অথবা নিজ উদ্যোগে ফ্রিল্যান্সিং কাজ শিখুন। একবার দক্ষ হয়ে গেলে শুরু করুন অনলাইন ভিত্তিক কাজ৷ আস্তে আস্তে অভিজ্ঞতা বাড়লে ও পোর্টফোলিও ভারী হলে অনেক ভালো ভালো কাজ পাবেন। আয়টাও বেশ ভালো হবে এক্ষেত্রে।

লেখালেখির কাজ:

কনটেন্ট রাইটিং জব সারা বিশ্বে দারুন জনপ্রিয় একটি পেশা। প্রায় প্রতিটা কোম্পানী ও প্রতিষ্ঠান এ পোস্টে পার্ট টাইম ও ফুল টাইম ভিত্তিক কর্মী নিয়োগ করে৷  তাছাড়া অনলাইন ভিত্তিক কাজ তো আছেই৷ কিছু সাইটের সাহায্য নিতে পারেন কাজের জন্য যেমন-

UPwork, WriterBay, Freelance writing, text broker, Expresswriters.com ইত্যাদি। এছাড়া কন্ট্রিবিউটর হিসেবে কাজ করতে পারেন কোন অনলাইন পোর্টাল অথবা দৈনিক পত্রিকার জন্য। লিখতে পারেন কোন ম্যাগাজিনে। এতে ঘরে বসে লিখবেন আপনি, উপার্জনটাও হবে ঘরে বসেই।

Blogging:

আরেকটি অভিনব ও আকর্ষনীয় উপায় হলো ব্লগিং। ইদানিং অনেকেই ব্লগিং এর সাথে জড়িয়ে পড়ছেন আর এটা উপভোগ ও করছেন। ঘরে বসে আপনি বিউটি ব্লগার ও ফ্যাশন ব্লগার হিসেবে লিখতে পারেন। হতে পারেন লাইফস্টাইল ব্লগার, যার মাধ্যমে নিজের জীবন যাত্রা তুলে ধরতে পারবেন আপনার অডিয়েন্স এর সামনে। তাছাড়া যে কোন শিক্ষনীয় বিষয় নিয়ে লিখতে পারেন ব্লগ। কাজটা যেমন উপভোগ করা যায়, বিনিময়ে উপার্জনটাও বেশ ভালো।

ইউটিউবার ও ইউটিউবিং:

এটা বর্তমানে বহুল পরিচিত একটি শখ ও পেশা। আজকাল অনেকেই  বেশ কিছু ইউটিউবারদের দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়ে ঝুঁকছেন ইউটিউব এর ভিডিও বানাতে৷  ফ্যাশন, মেকআপ, বিউটি এন্ড হেল্থ টিপ্স, চিকিৎসাবিদ্যা, গেমিং, ফানি ভিডিও, পড়াশোনার ভিডিও,  শিক্ষনীয় নানা বিষয়, Travelling videos, food reviews, Music cover & original music production, instrument playing, Cooking,  DIY videos ইত্যাদি নানাবিধ বিষয়ে আপনি ভিডিও বানাতে পারেন।

লক্ষ্য রাখতে হবে যে বিষয়ে ভিডিও বানাবেন ঐ বিষয়ে আপনি পারদর্শী কিনা আর আপনার ভিডিও কোয়ালিটির উপর জোর দিতে হবে সেই সাথে। ইউটিউব এর ভিডিও বানিয়ে মাসে লাখ লাখ টাকা কামাচ্ছেন এমন ইউটিউবার বাংলাদেশেই আছেন। আর বিদেশে এই আয়ের অংকটা বিলিয়ন, মিলিয়ন ও ছাড়িয়ে যায় অনেক ইউটিউবারের ক্ষেত্রে।

অনলাইন ক্লাস:

হয়ে যেতে পারেন একজন অনলাইন শিক্ষক। নিজের বিদ্যাকে ছড়িয়ে দিতে পারেন ইন্টারনেটের মাধ্যমে হাজার হাজার ছাত্র ছাত্রীর মাঝে।  এক্ষেত্রে নিজস্ব ওয়েবসাইট, ফেসবুক ও ইউটিউবকে ব্যবহার করতে পারেন প্ল্যাটফর্ম হিসেবে। আপনি কি শিখাবেন তা পুরোপুরি নির্ভর করবে আপনার দক্ষতার উপর।  আপনি শিখাতে পারেন পড়াশোনার কোন টপিক থেকে শুরু করে গিটার এর টুং টাং পর্যন্ত। এভাবে ঘরে বসে উপার্জনটা ভালো অংকের হতে পারে৷ বাংলাদেশের আয়মান সাদিক এর ১০ মিনিট স্কুল কিংবা বিদেশে খান একাডেমী খুব সুন্দর দু’টি উদাহরন অনলাইন ক্লাসের।

Be an Artist & show your Art:

আমরা সবাই কোন না কোন কাজে দক্ষ, বিশেস করে ক্রিয়েটিভ কাজগুলা। যেমন অনেকে খুব সুন্দর মেহেদী দিতে পারেন, অনেকে মারাত্মক মজার ও আকর্ষণীয় ডিজাইনের কেক বানান, অনেকে কাগজ কেটে কেটে বানিয়ে ফেলেন খুব সুন্দর নানা গিফ্ট বা DIY stuffs। অনেকেই খুব সুন্দর ছবি আঁকে ও তা বিক্রি করে।।

তাই আপনার মধ্যে এ ধরনের প্রতিভা থাকলে তা ব্যবহার করুন।  হালকা উপার্জনও হয়ে যাবে৷ মনের আনন্দ ও পাবেন। ইদানিং কালে অনেক অনলাইন শপ আছে যারা খুব সুন্দর কেক বানিয়ে দেয়, খুব সুন্দর মেহেদী লাগিয়ে দেয় অথবা মারাত্মক সুন্দর ক্র্যাফ্টিং এর কাজ করে। চাইলে নিজের প্রতিভাকে কাজে লাগিয়ে আপনিও শুরু করতে পারেন কাজ।     

Fashion  designer:

অনেকে আছেন যাদের পোশাক ও ফ্যাশনের ব্যাপারে ধারনাটা খুব ভালো থাকে৷ আপনি যদি এমন কেউ হোন খুলে ফেলুন নিজের ফ্যাশন লাইন। সুন্দর সুন্দর জামা ডিজাইন করা ও তা বিক্রি করা, একদিকে যেমন নিজের কাছে ভালো লাগবে, তেমনি অল্প কিছু মূলধন খাটিয়ে বাড়িতেই করতে পারেন এই ব্যবসা। লাভটাও ভালো আসবে।

Progammer/ Coder Job:

এ কাজটি বেশ জনপ্রিয় পেশা। কোড হলো, কম্পিউটারএর ভাষা লেখা যা কম্পিউটার বুঝতে পারে। যারা কম্পিউটার ইন্জিনিয়ার কিংবা এ ব্যাপারে ধারনা রাখেন  ও কোডিং এর কাজ পারেন তাদের জন্য অপেক্ষা করছে হাজার হাজার কাজের সুযোগ। তাই কাজ না পারলে, আজই শিখে ফেলুন কোডিং এর কাজ, শুরু করুন অনলাইনে কাজ করে উপার্জন।

Resume Writer/ সিভি লেখক:

এ পেশাটি সারা বিশ্বে প্রচলিত থাকলেও বাংলাদেশে শুরু হয়েছে সম্প্রতি। আপনি যদি  সিভি লিখতে পারদর্শী হোন তবে ঘরে বসেই সিভি লিখে দিতে পারেন মানুষের জন্য, পারিশ্রমিক এর বিনিময়ে।  এ কাজটি মজার ও লাভজনকও।

তো জেনে নেয়া গেল , বেশ কয়েকটি পেশার কথা, যার মাধ্যমে আপনি ঘরে বসেই উপার্জন করতে পারবেন। সাথে সময়টাও ভালো কাটবে আপনার। আশা করছি, কাল থেকে আমরা অলস বসে না থেকে এর কোনটা চেষ্টা করতেই পারি। নিজের ভালো লাগা থেকেও কাজগুলো করা যেতেই পারে।  


 

১০ মিনিট স্কুলের ব্লগের জন্য কোনো লেখা পাঠাতে চাইলে, সরাসরি তোমার লেখাটি ই-মেইল কর এই ঠিকানায়: [email protected]

লেখাটি ভালো লেগে থাকলে বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না!
What are you thinking?

GET IN TOUCH

10 Minute School is the largest online educational platform in Bangladesh. Through our website, app and social media, more than 1.5 million students are accessing quality education each day to accelerate their learning.