কী হবে এতো পড়ালেখা করে?

October 6, 2017 ...

পুরোটা পড়ার সময় নেই ? ব্লগটি একবার শুনে নাও !

আমাদের আশেপাশে এমন অনেক শিক্ষার্থী আছে যারা আসলে জানেই না যে সে কেন পড়াশোনা করছে কিংবা পড়াশোনা করাটা কেন এতো জরুরি। আমরা আসলে পড়াশোনা বলতে পাঠ্যবইয়ের পড়া ছাড়া আর কিছুই বুঝিনা, এর বাইরে তেমন কিছু পড়তেও চাই না, জানতেও চাই না।

একেকজন পড়াশোনা করে একেক কারণে। কেউ পড়াশোনা করে জ্ঞান বাড়ানোর জন্য, কেউ পড়াশোনা করে শুধু ডিগ্রি অর্জন করার জন্য, কেউ আবার ভালো চাকরি পাওয়ার জন্য পড়াশোনা করে। তবে সত্যিই পড়াশোনার আসল উদ্দেশ্য কী বা কেন পড়াশোনা করা উচিত চলো জেনে নেই সে সম্পর্কে।

কল্পনাশক্তি বাড়াতে:

পড়াশোনার মাধ্যমে অর্থাৎ নতুন একটা কিছু জানার মাধ্যমে বা শেখার মাধ্যমে তুমি নতুন কিছু নিয়ে চিন্তা করতে আরম্ভ করবে, কল্পনা করতে আরম্ভ করবে। এর মাধ্যমে তুমি আসলে একটা বিষয়কে বিভিন্ন দিক থেকে দেখতে শিখবে, বিষয়টা নিয়ে ভাবতে শিখবে।

The beautiful thing about learning is nobody can take it away from you. B. B. King

যোগাযোগের দক্ষতা বাড়াতে:

যখন তুমি নতুন একটি ভাষা শিখবে বা নতুন একটি স্থান সম্পর্কে বা নতুন একটি বিষয় সম্পর্কে জানবে তখন তোমাকে অন্য কারো সাথে যোগাযোগ করতে বা কথা বলতে সাহায্য করবে। তখন তুমি তাদের সাথে কথা বলতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবে। কিন্তু নতুন কিছু শেখা ছাড়া তা কোনভাবেই সম্ভব হতো না।

স্মার্টনেস জিনিসটা প্রকাশ পায় একজন মানুষের কথা-বার্তায়, শিক্ষায়, আচরণে।

বোধশক্তি বাড়াতে:

যখন তুমি কোন একটি বিষয় সম্পর্কে পড়বে তখন তোমার মধ্যে সে সম্পর্কে পরিষ্কার একটি ধারণা জন্মাবে। আর কোন কাজ ভালোভাবে করতে হলে সবার আগে প্রয়োজন সে সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা নেয়া এবং নিয়ম-কানুনগুলো পড়ে নেয়া। সেজন্যই পড়াশোনা বিষয়টা অনেক জরুরি।

বিনোদন:

বিনোদনের জন্য কিংবা অবসর সময় পার করার জন্য বই একটি গুরুত্বপূর্ণ জিনিস। নিজেকে আনন্দ দিতে চাইলে পড়ে নিতে পারো মজার মজার অসাধারণ সব বইগুলো। যা তোমাকে শুধু আনন্দই দিবে না, তোমার জ্ঞানও বাড়াবে অনেকগুণ।

নিজেকে স্মার্ট করে তুলতে হলে:

স্মার্টনেস জিনিসটা প্রকাশ পায় একজন মানুষের কথা-বার্তায়, শিক্ষায়, আচরণে। তুমি যতো বেশি পড়াশোনা করবে তোমার কথা-বার্তা, শব্দভাণ্ডার, জ্ঞান তত বাড়বে। অন্য একজন মানুষও তখন তোমার সাথে কথা বলে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবে, তোমার প্রতি তখন তার আগ্রহ বাড়বে।

532119672

অন্যদের থেকে অভিজ্ঞতা অর্জন:

তুমি যখন কোন একটি বই পড়বে তখন তুমি অন্য একজনের জীবনের অভিজ্ঞতা থেকে নেয়া লেখা গল্প পড়বে। এর মাধ্যমে তোমার অনেক অভিজ্ঞতা অর্জন হবে। যেকোন সময় তোমার জন্য সিদ্ধান্ত নেয়া সহজ হবে এবং কোন কাজের ক্ষেত্রে তুমি সহজেই ভুলগুলো এড়িয়ে যেতে পারবে।

আত্মউন্নতি:

তুমি যদি নিজেকে বর্তমান অবস্থানের চেয়ে ভালো অবস্থানে নিতে চাও তাহলে পড়াশোনার কোন বিকল্প নেই। নিজের জীবনকে সুন্দর করতে হলে, বিভিন্ন পরিস্থিতিতে সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষেত্রে সে বিষয়ে যথেষ্ট ধারণা থাকা লাগে। আর নিজের সিদ্ধান্ত নিজে নেয়ার জন্য, নিজেকে অন্যদের চেয়ে এগিয়ে নেয়ার জন্য হলেও পড়াশোনা করাটা জরুরি।


১০ মিনিট স্কুলের লাইভ এডমিশন কোচিং ক্লাসগুলো অনুসরণ করতে সরাসরি চলে যেতে পারো এই লিঙ্কে: www.10minuteschool.com/admissions/live/

১০ মিনিট স্কুলের ব্লগের জন্য কোনো লেখা পাঠাতে চাইলে, সরাসরি তোমার লেখাটি ই-মেইল কর এই ঠিকানায়: write@10minuteschool.com

আপনার কমেন্ট লিখুন