১১টি বৈশিষ্ট্য যা বলে দিবে তোমার মাঝে অতিরিক্ত চিন্তা করার অভ্যাস আছে কিনা

আমি নাহিয়ান সিয়াম। রমজান মাসে জন্ম বলে মা পছন্দ করে আমার এই নাম রাখেন। লিখতে ভালো লাগে তাই লেখালেখির কাজ পেলেই তা হাতে নেয়ার চেষ্টা করি।

পুরোটা পড়ার সময় নেই? ব্লগটি একবার শুনে নাও।

আমাদের প্রায় সবারই এমন কিছু বন্ধু আছে যাদের সব বিষয় নিয়েই একটু বাড়তি চিন্তা করার অভ্যাস রয়েছে। হোক সেটা পড়ালেখা কিংবা প্রতিদিনকার কোনো ব্যবহারিক কাজ। কাজটির শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত তাদের চিন্তার ঝড় দেখলে আশেপাশের লোকজনই ভয় পেয়ে যায়। মজার ব্যাপার হলো, তাদের মাঝে এমন কিছু বৈশিষ্ট্য আছে যা অন্য সবার মধ্যে সচরাচর দেখা যায় না। এমন ১১টি বৈশিষ্ট্য আজ এই লেখায় তুলে ধরবো যেগুলো থেকে বুঝতে পারবে তোমার অথবা তোমার বন্ধুর মাঝে অতিরিক্ত চিন্তা ভাবনা করার প্রবণতা আছে কিনা। তবে কারোর মাঝে আলাদাভাবে এখানের একটি বা দুটি বৈশিষ্ট্য মিলে গেলেই যে সে নিয়মিত অতিরিক্ত চিন্তা করে এমনটি নয়। ব্যাতিক্রম থাকতেই পারে। আর এসব বৈশিষ্ট্যের মাঝে ভালো এবং খারাপ উভয় ধরণের অভ্যাসই দেখা যায়।

১. খুব বেশি ক্ষমা চাওয়ার প্রবণতা  

যারা কারণ ছাড়াই খুব বেশি চিন্তা করে, তাদের একটি বড় স্বভাব হলো অতিরিক্ত ক্ষমা চাওয়া। ভুলটি তারা নিজেরা না করে থাকলেও বারবার এর জন্য এমনভাবে ক্ষমা চেয়ে থাকে যেন ভুলটি তারাই করেছে। অনেক সময় বাস্তবসম্মত কোনো কারণ ছাড়াই তারা বারবার এই ক্ষমা চাওয়ার কাজটি করে থাকে। এটা একদিকে যেমন খুবই বিরক্তিকর, অন্যদিকে এই অভ্যাস তাদের নানা বিপদের মধ্যেও ফেলে দেয়। অন্যের ভুল নিজের বলে স্বীকার করে নেয়ার ফলে মূলত যার ক্ষতি হয়েছে, সে মনে করে ফেলতেই পারে যে ভুলটি হয়তো সেই করেছে এবং এর জন্য হয়তো তাকে বিনা কারণে শাস্তিও পাওয়া লাগতে পারে!

২. ঘুমাতে গেলেই মনে পরে সারাদিনের কথা

সারাদিনের ক্লান্তি শেষে যখন ঘুমাতে যাই তখন অনেক সময় মনে পড়ে না যে, “৫ বছর আগে ওই কাজটা কেনো  করলাম!” লজ্জ্বায় তখন নিজেকে আর সামলে রাখা যায় না। আমাদের অনেকেরই এই অভ্যাসটা আছে। তবে যারা একটু বেশিই চিন্তা করে, তাদের ক্ষেত্রে ব্যাপারটা অন্যরকম। ঘুমাতে গেলে তাদের মনে পড়ে সারাদিনে যতো গুরুত্বপূর্ণ কাজ ছিলো তা ঠিকমতো করেছে কিনা! ঘরের লাইট নিভিয়েছি? গ্যাসের চুলা বন্ধ করেছি? দরজা ঠিকমতো লাগিয়েছি? এরকম নানা চিন্তা মাথায় ঘুরপাক খেতে থাকে। এর ফলে রাতের ঘুমটাও বেচারাদের ঠিকমতো হয় না।

৩. অন্যকে খুশি করার চিন্তা থাকে সবসময়

মানো আর নাই মানো, অন্যজন তাকে নিয়ে কী ভাবলো এটা নিয়ে প্রায় সবসময়ই চিন্তা করতে থাকে এরা। কেউ যাতে খারাপ না ভাবে এজন্য তারা সবসময়ই চেষ্টা করে সবাইকে খুশি রাখতে। কিন্তু এই কাজ করা তো আর সবসময় সম্ভব হয়ে উঠে না। তাই অনেক সময়ই কারো না কারো চোখে এদের খারাপ হতেই হয়। কিন্তু সবাইকে খুশি করতে গিয়ে নিজের খুশি বলতে যে একটা কথা আছে, এটা অনেক সময় তাদের মাথায়ই থাকে না। তাই বেশিরভাগ সময় অতিরিক্ত চিন্তা করা বন্ধুদের আমরা খুব মন খারাপ করে থাকতে দেখি।

৪. বিপদ থেকে যথা সম্ভব দূরে থাকা

স্কুল, কলেজ কিংবা বিশ্ববিদ্যালয় যে জায়গাই হোক না কেনো, বন্ধুদের মাঝে খুঁটিনাটি বিষয় নিয়ে কোনো না কোনো সমস্যা হতেই পারে। এসব সমস্যা সমাধানের জন্য আমাদের সুন্দর একটি উপায় বের করতে হয়। কিন্তু এসব ক্ষেত্রে অতিরিক্ত চিন্তাশীল বন্ধুদের খুব একটা কাছে পাওয়া যায় না। আগেই বলেছি তারা সবসময় সবাইকে খুশি রাখার চেষ্টা করে। সবাইকে খুশি রাখার জন্য হোক কিংবা নিজেকে সবার দৃষ্টিতে ভালো রাখার জন্য হোক, তারা এসব ঝামেলা থেকে সবসময় নিজদের দূরে সরিয়ে রাখে।

৫. সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগা এবং প্রায়শই অপরপক্ষের মতামত নেয়া

কোনো কাজে অন্য কারো মতামত নেয়া মোটেও খারাপ কিছু না। এতে কাজের মান কিরকম হলো সেই ব্যাপারে একটি ভালো ধারণা পাওয়া যায়। কিন্তু অতিরিক্ত চিন্তাকারীদের ক্ষেত্রে ব্যাপারটা একটু অন্যরকম। তাদের মধ্যে অধিকমাত্রায় সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগার একটি প্রবণতা কাজ করে। কোনো কাজ শেষ করার পর তারা বুঝতে পারেনা কাজ ভালো মতো শেষ হয়েছে কিনা। এজন্য তারা নানাজনের মতামত নিয়ে থাকে। কিন্তু এরপরেও বেশিরভাগ ক্ষেত্রে তাদের মনের সন্দেহ দূর হয় না। সবসময়ই তাদের মনে এই সন্দেহ কাজ করে যে, তাদের কাজটি হয়তো ভালো মতো হয় নি।


সিদ্ধান্তহীনতায় থাকা যে কোনো পরিস্থিতির জন্য ক্ষতিকর। photo credit: freepik.com

৬. প্রায় সময়ই ব্যস্ততার মধ্যে থাকে

বিভিন্ন বিষয় নিয়ে চিন্তা করার ফলে প্রায়ই এসব বন্ধুদের ব্যস্ততার মধ্যে থাকতে দেখা যায়। যখনই এদের ডাক দিবে, তখনই কোনো না কোনো কাজে এরা ব্যস্ত থাকবেই। এজন্য এদের প্রায় সময়ই অন্যমনস্ক থাকতে দেখা যায়। মাথায় এলোমেলো চুল, খাওয়া দাওয়ার নির্দিষ্ট নিয়ম নেই এগুলো এদের খুবই সাধারণ বৈশিষ্ট্য। হাতে কোনো কাজ আসলে তা শেষ করার জন্য এরা উঠে পরে লাগে। তাদের লক্ষ্যই থাকে কীভাবে সময়ের আগে কাজ শেষ করে নেয়া যায়। তাহলেই এদের শান্তি।

৭. সবকিছু নিঁখুত হওয়া চাই

একটু আগেই বলেছি যে, অতিরিক্ত চিন্তা করা মানুষেরা খুব বেশি সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগে। এর পিছনে কিন্তু একটি ভালো কারণ আছে। অতিরিক্ত চিন্তা করার কারণে তারা কোনো কিছুতেই খুঁত দেখতে পারে না। তারা চায় যেকোনো কাজ যেন একদম সুন্দরভাবে শেষ হয়। কোনো কিছুতে কোনো প্রকার ভুল থাকা যাবে না। তাদের এই স্বভাবের জন্য প্রায়ই দেখা যায় সময়মতো কাজ শেষ করা সম্ভব হচ্ছে না। তবে এই অভ্যাস যে একদমই খারাপ তা কিন্তু না। এধরণের মানুষেরা যেকোনো কাজ নিজের জন্য করছে বলে মনে করে থাকে। তাই কাজ করার বেলায় তারা চায় নিজের সেরাটাই ঢেলে দিতে। কাজ শেষ করতে সময় একটু বেশি লাগলেও, কাজের মান নিয়ে কারো মনে কোনো প্রশ্ন থাকতে পারে না।

৮. কোনো কাজে সুন্দর পরিকল্পনা বের করা

আমাদের যেসব বন্ধুরা অতিরিক্ত চিন্তা করে, তাদের সব ধরণের গুণের মধ্যে এটিই হলো সবার সেরা। কোনো কাজ শুরু করার আগে দরকার একটি সুন্দর পরিকল্পনা। আর এই কাজে আমাদের এই বন্ধুরা হলো সবার সেরা। তারা ভাবনা চিন্তা করে এমন একটি পরিকল্পনা তৈরি করে যা আমাদের কাজ সহজে শেষ করে ফেলতে খুবই সহায়তা করে। তাই যেকোনো কঠিন কাজে সঠিক পরিকল্পনা তৈরি করতে চাইলে আমাদের এই বন্ধুদের পাশে রাখা অবশ্যই দরকার।

৯. যেকোনো বিষয় নিয়ে মাথায় জাবড় কাটতে থাকা

গরুর জাবর কাটা দেখেছ না? মুখে ঘাস নিয়ে চাবিয়ে যাচ্ছে তো যাচ্ছেই। গলা দিয়ে নামানোর আর খবর নেই। আমরা ইন্টারনেটে এক নাগাড়ে ঘন্টার পর ঘন্টা ব্রাউজিং করে যেমন জাবড় কাটি, গরুও সেভাবেই জাবড় কাটে। তবে আমাদের অতিরিক্ত চিন্তাশীল বন্ধুদের ক্ষেত্রে জাবড় কাটার ধরণটি একটু ভিন্ন। তারা জাবড় কাটে তাদের চিন্তার মধ্যে। একটি উদাহরন দিয়ে বলি। আজকে সকালে বাসের হেল্পারের সাথে এক যাত্রীর ভাড়া কমবেশি নিয়ে কথা কাটাকাটি হলো। এই ব্যাপারটা ধরো আমাদের বন্ধুর পাশের সিটে বসে লক্ষ্য করেছে। তখন তার মাথায় চিন্তা ঘুরপাক খেতে থাকবে এই ভেবে যে, ওই যাত্রীটি নির্ধারিত ভাড়া দিতে চাইলো না কেনো? মাত্র ৫ টাকার জন্য কি প্রতি সকাল উনি এরকম ঝগড়া করে থাকেন? হেল্পার কি বেশি ভাড়া নিচ্ছে? অন্যান্য যাত্রীরাও কি তাহলে প্রতিদিন অতিরিক্ত ভাড়া দিচ্ছে? সে নিজেও কি এভাবে প্রতিদিন বাড়তি ভাড়া গুনছে? চিন্তা একবার শুরু হলে তা আর শেষ হতে চাইবে না। এভাবেই একটি অপ্রয়োজনীয় বিষয় দীর্ঘক্ষণ মাথায় গেঁথে রাখা তাদের একটি স্বভাব।

১০. বাহ্যিকতা দেখেই মানুষকে বিচার করা

যারা প্রয়োজনের তুলনায় অতিরিক্ত চিন্তা করে তাদের সম্ভবত এই অভ্যাসটা সব থেকে বাজে। একজন মানুষকে ভালোভাবে মূল্যায়ণ করতে তাদের ব্যাপারে সঠিক তথ্যটি জানা খুবই জরুরি। সামান্য কথা বার্তা বলেই একজন মানুষকে বিচার করে দেখা কখনও উচিৎ না। মানুষের কাজের মূল্যায়ন তার কাজ দেখে করা গেলেও, একজন মানুষের চরিত্র সম্পর্কে ভালো ধারণা পেতে হলে তার সাথে আগে ভালোভাবে মিশতে হয়। কিন্তু যাদের চিন্তা করার প্রবণতা বাকি সবার থেকে বেশি, তারা একজন মানুষকে দেখেই তাকে সাথে সাথে মূল্যায়ণ করতে চায়। এটি অনেক সময় একজন মানুষের ব্যাপারে অযথাই খারাপ একটি ধারণা তার মাথায় তৈরি করে দেয়।.


অন্যকে না জেনে বিচার করা উচিৎ না। photo credit: Giphy

১১. সব জায়গায় লুকিয়ে থাকা বার্তা খোঁজার চেষ্টা করা

যারা অতিরিক্ত চিন্তা করে তাদের একটি ভয়ংকর অভ্যাস হলো, কোনো কথার পিছনে অন্য কোনো অর্থ আছে কিনা তা খুঁজে বের করা। সহজভাবে বুঝিয়ে বললে, মেসেঞ্জারে চ্যাটিং করার সময় কোনো সিরিয়াস কথায় ইমোজির ব্যবহার না করলে আমরা অনেক সময় বুঝে নেই যে, অপরদিকের মানুষটি হয়তো কোনো কারণে আমাদের উপর রেগে আছে। চ্যাটিং এর সময় অপরজনের কথা বলার ধরণ বোঝা যায় না বলে আমরা এধরণের ভুল করে থাকি। কিন্তু বেশি চিন্তা করতে গিয়ে আমাদের বন্ধুরা অনেক সময় বুঝতে পারে না তাদের কী অর্থে কী বলা হচ্ছে। তাদের যদি স্বাভাবিকভাবেই বলা হয় যে, “তুমি কাজটি বেশ ভালো করেছো।” নিশ্চিত থাকো তারা এর অপর কোনো ভাবার্থ বের করেই ছাড়বে। ব্যাপারটি অনেকটা আগের জাবড় কাটার মতো।


অতিরিক্ত চিন্তার অভ্যাস বদলাতে পারো এভাবে। photo credit: Shamash Alidina

তাহলে বুঝতেই পারছো আমাদের যেসব বন্ধুরা অতিরিক্ত চিন্তা করে তারা একদিকে যেমন কোনো কাজ খুব সুন্দরভাবে সম্পন্ন করতে পারে, অপরদিকে তাদের এমন কিছু স্বভাব রয়েছে যা আমাদের ধৈর্য্যের চরম পরীক্ষা দিতে বাধ্য করে। তবে খেয়াল রেখো, এটি কিন্তু কোনো রোগ না। এটি হলো একটি অভ্যাস যা সময়ের সাথে সাথে একজন ব্যাক্তির মাঝে গড়ে উঠে।

References:

  1. https://ideapod.com/10-things-overthinkers-always-never-talk/?utm_source=facebook&utm_medium=link&utm_campaign=js&fbclid=IwAR09KrqpxhAHX1HbzIaM_5j5z6cQ2dRLkBG1NdqGBOXv9kVaz5PGrEvFyiA
  2. https://www.lifehack.org/287116/15-signs-youre-over-thinker-even-you-dont-feel-you-are
  3. https://thoughtcatalog.com/jess-warner/2018/04/11-things-people-dont-realize-youre-doing-because-youre-an-overthinker/
  4. https://www.powerofpositivity.com/5-signs-youre-an-overthinker/

১০ মিনিট স্কুলের ব্লগের জন্য কোনো লেখা পাঠাতে চাইলে, সরাসরি তোমার লেখাটি ই-মেইল কর এই ঠিকানায়: [email protected]

লেখাটি ভালো লেগে থাকলে বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করতে ভুলবেন না!
What are you thinking?

GET IN TOUCH

10 Minute School is the largest online educational platform in Bangladesh. Through our website, app and social media, more than 1.5 million students are accessing quality education each day to accelerate their learning.