এতোদিন যে কাজগুলো ভুলভাবে করা হতো!

May 16, 2018 ...

পুরোটা পড়ার সময় নেই? ব্লগটি একবারে শুনে নাও!

 

কিছু বদভ্যাস আঙুল তুলে দেখিয়ে দেয়া লাগে না। ভালো-মন্দের মাপকাঠিতে আমরা ভালো-মন্দ পার্থক্য করার ব্যাপারেও পেশাজীবী। অথচ কিছু দৈনন্দিন কাজ না জেনে ভুলভাবে করে থাকি। এমন দশটি ভুলভাবে করা কাজের তালিকার সাথে আজকে পরিচিত হওয়া যাক, যা আসলেই ভুল জেনে অবাক হতে হবে-

#১

ভুল- সারা সপ্তাহ ঘুমে অনিয়ম হলেও সপ্তাহের শুক্রবারটা সারাদিন ঘু্মালে ঘুমগাড়ি ট্র্যাকে আসবে।

সঠিক- প্রতিরাতে ৭-৮ ঘণ্টার ঘুম আবশ্যক।

#২

ভুল- সুস্থ থাকতে হলে ভিটামিন ট্যাবলেটের জুড়ি নেই।

সঠিক- চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া কোনো ট্যাবলেটই গ্রহণ করা উচিত না।

#৩

ভুল- দৈনিক এক অথবা দুইবার গোসল করা উচিত।

সঠিক- যখন গোসল করা দরকার, তখন গোসল করতে হয়।

#৪

ভুল- কেউ হাঁচি দিলে তার কাছ থেকে মুখ সরিয়ে নিতে হয়।

সঠিক- সুস্থ থাকার স্বার্থে অসুস্থ ব্যক্তির সাথে এক বাড়িতে থাকা উচিত না।

 

#৫

ভুল- প্রতিবারের খাওয়ার পর দাঁত মাজা উচিত।

সঠিক- সকালে ও রাতে, দিনে দুইবার দাঁত মাজলেই হলো।

#৬

ভুল- খাওয়ার পর একটু ঘুমানোটা আসে।

সঠিক- খাওয়ার পর ঘুমালে শরীরে মেদ জমে মানুষ মোটা হওয়ার পথে পাড়ি জমায়।

#৭

ভুল- সুস্থ থাকতে হলে বাড়িঘর চকচকে তকতকে করে রাখা উচিত।

সঠিক- বেশি পরিষ্কার বাড়িতে অ্যালার্জিজনিত অসুখ-বিসুখ বেশি হয়।

#৮

ভুল- মাইক্রোওয়েভে খাবার তৈরি করলে খাবারের গুণাগুণ নষ্ট হয়ে যায়।

সঠিক- মাইক্রোওয়েভের রশ্মি খাবারের অণু-পরমাণুকে বিয়োজিত করতে পারে না।

#৯

ভুল- যত ঘুম, তত কাজ করার সামর্থ্য লাভের সম্ভাবনা বৃদ্ধি।

সঠিক- ৮ ঘণ্টার বেশি ঘুমালে শ্রান্তি জুড়ে থাকে সারাদেহে, সারাদিন।

#১০

ভুল- ঘুম থেকে জাগতে হলে অ্যালার্ম ঘড়ির তুলনা হয় না।

সঠিক- হুট করে ঘুম থেকে জাগা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর।

ভুলগুলো যে আসলেই ভুল, তা আবিষ্কার করতে পেরে প্রথম প্রথম কষ্ট লাগবে, তা-ই স্বাভাবিক। কিন্তু ভালো অভ্যাসের তালিকাটা ভারি করা দরকার আমাদের সবারই। পাশাপাশি, হালকা গবেষণা করে আমাদের প্রতিদিনের কাজগুলোকে গুছিয়ে নেয়া অনেক জরুরি। যাতে প্রতিটা দিনই কাটানো হয় সুন্দর মতো!

এই লেখাটির অডিওবুকটি পড়েছে মেহের আফরোজ শাওলী


১০ মিনিট স্কুলের লাইভ এডমিশন কোচিং ক্লাসগুলো অনুসরণ করতে সরাসরি চলে যেতে পারো এই লিঙ্কে: www.10minuteschool.com/admissions/live/

১০ মিনিট স্কুলের ব্লগের জন্য কোনো লেখা পাঠাতে চাইলে, সরাসরি তোমার লেখাটি ই-মেইল কর এই ঠিকানায়: write@10minuteschool.com

আপনার কমেন্ট লিখুন